জেনে নিন শীতকালীন সবজিগুলোর উপকারিতা সম্পর্কে

বাজারে উঠেছে শীতের নানা সবজি। সবজি উৎপাদনে বাংলাদেশ চলে এসেছে বিশ্বের প্রথম সারিতে। আর এর সুফল আপনি নেবেন না,তা কি হয়? জেনে নিন শীতকালীন সবজিগুলোর উপকারিতা সম্পর্কে।

 

কপি আছে নানান রকম:
ফুলকপি, ব্রকলি
এই গোত্রের সবজিগুলোকে একনামে আরুগুলা গোত্রীয় বলা যায়। শীতে বাজার ছেয়ে গেছে এই সবজিতে। ভিটামিন সি, , ডি এবং কে-এর দারুণ উৎস এগুলো, প্রচুর রয়েছে ক্যালসিয়াম ও লৌহ। ভালো কথা হলো যে এই গোত্রের সবজিতে অক্সালেটের মাত্রা কম, তাই কিডনি রোগীরাও খেতে পারবেন। ভিটামিন পুরোপুরি পেতে এগুলো বেশি রান্না করবেন না, ভাঁপ দিয়ে সেদ্ধ করে খান। তবে ভিটামিন এ, ডি এবং কে তেলে দ্রবণীয়, তাই  খানিকটা তেল ব্যবহার করতেই হবে।

গাজরের যত গুণ:
হালকা কমলা রঙের গাজর এখন চোখ ও মন জুড়িয়ে দিচ্ছে। ছোটবেলায় নিশ্চয় শুনেছেন যে গাজর খেলে চোখ ভালো থাকে। কথাটা মিথ্যা নয়। গাজরে রয়েছে প্রচুর ভিটামিন এ। এটি চোখ ও ত্বক ভালো রাখে, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এ ছাড়া গাজরে রয়েছে ভিটামিন সি, লুটিন, সাইকোপিন ইত্যাদি অ্যান্টি-অক্সিডেন্টের সমাহার, যা ক্যানসার প্রতিরোধে সহায়ক। গাজরের ভিটামিন সি এবং এ অতিরিক্ত তাপ, ঠান্ডা ও আলোয় কিছুটা হারায়, তাই এর গুণাগুণ পেতে মুখ বন্ধ বা জিপার প্লাস্টিক ব্যাগে ভরে ফ্রিজে রাখুন। হালকা তেলে সেদ্ধ ছাড়া প্রতিদিন সালাদে খানিকটা কাঁচা গাজর রাখুন, উপকার বেশি পাওয়া যাবে এতে।

বাঁধাকপিতে বাঁধা পড়ুন:
বাঁধাকপির পাতার মোড়কে আছে নানা পুষ্টিগুণ
ভিটামিন সি, কে। ফলিক অ্যাসিড বা ফলেট রক্ত বাড়ায়, গর্ভস্থ শিশুর সুস্থতা নিশ্চিত করে। এ ছাড়া এর গ্লুকোসিনোলেট নামের উপাদান ক্যানসার প্রতিরোধে সহায়ক। গবেষণা বলছে, পাতা দিয়ে মোড়া এ ধরনের সবজি রক্তে চর্বি ও শর্করা কমায়। বাঁধাকপি আঁশেরও চমৎকার উৎসতাই কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে।

মূলা আর শালগম:
মুলা ও গাজর গোত্রীয় শেকড় সবজি। এতে আছে অনেক আঁশ, অনেক ভিটামিন। আধা কাপ মুলায় আপনি দৈনিক চাহিদার ভিটামিন সি অনেকখানিই পেয়ে যাবেন। আর এটি ফলেট ও পটাশিয়ামেরও ভালো জোগানদাতা। একই কথা খাটে শালগমের বেলায়ও। ভিটামিন সি, ফলেট, পটাশিয়াম ও ভিটামিন কে ছাড়া এতে রয়েছে অ্যান্টি ক্যানসার উপাদান গ্লুকোসিনোলেটও। ক্যালসিয়ামও আছে বেশ। পাতে প্রতিদিন মুলা ও শালগমজাতীয় সবজি থাকাই ভালো।

 

Leave a Comment