শীতে ত্বকের যত্ন কিভাবে নিবেন?

 শীতে আবহাওয়া পরিবর্তনের সঙ্গে সঙ্গে অর্থাৎ শুষ্ক আবহাওয়া ও ধুলাবালুতে চলার ফলে ত্বক হয়ে যায় খসখসে ও মলিন। এর ফলে ত্বক ফেটে যাওয়া থেকে শুরু করে ত্বকে চুলকানিও হতে পারে।
শীতকালে গোসলে কম সাবান ব্যবহার বা ময়েশ্চারাইজিং সাবান ব্যবহার করলে ত্বকে খসখসে ভাব কমে আসবে। রাতে ঘুমানোর আগে ও গোসলের পর নিয়মিত ময়েশ্চারাইজিং লোশন ব্যবহার করলে ত্বকের খসখসে ভাব দূর হবে। ফলে আর চুলকানিও হবে না এবং ত্বকও ফাটবে না।

চুল
খুশকিমুক্ত থাকতে নিয়মিত সপ্তাহে দুই দিন কিটোকোনাজল শ্যাম্পু ব্যবহার করুন। যাঁদের পুরোনো চর্মরোগ যেমন¦সোরিয়াসিস, একজিমা, ইকথায়সিস ইত্যাদি আছে, তাদের আরেকটু যত্ন বেশি নিতে হবে। প্রয়োজনে চিকিৎসকের পরামর্শ নেবেন।

মুখ
ভালো ব্র্যান্ডের ময়েশ্চারাইজারযুক্ত ক্রিম ব্যবহার করতে পারেন। যাঁদের ব্রণের সমস্যা আছে, তাঁরা ক্রিমের সঙ্গে একটু পানি মিশিয়ে নিতে পারেন।

ঠোঁট

 ঠান্ডা বাতাসে ঠোঁট ফেটে যায়। কখনোই জিব দিয়ে ভেজানো উচিত নয়। কুসুম গরমপানিতে পরিষ্কার একটি কাপড় ভিজিয়ে নিয়ে ঠোঁটে হালকা করে ৩-৪ বার চাপ দিন। তারপর ভ্যাসলিন বা গ্লিসারিন পাতলা করে লাগিয়ে নিন।

 

হাতের তালু ও পায়ের তলা

 এ সময় ১০ শতাংশ ইউরিয়া, ভ্যাসলিন লাগালে হাতের তালু অনেকটা মসৃণ হয়ে আসে। শীতে অনেকের পায়ের তলা ফেটে যায়। ৫ শতাংশ সেলিসাইলিক অ্যাসিড অয়েন্টমেন্ট অথবা ভ্যাসলিন নিয়মিত মাখতে পারেন।

 

সানস্ক্রিন

 

শীত আসছে বলে ভাববেন না যে সানস্ক্রিন ব্যবহার করার প্রয়োজনীয়তা কমে গেছে। বাইরে বের হওয়ার ৩০ মিনিট আগে সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন।

 

শরীরের অন্যান্য অংশ

ত্বকের আর্দ্রতা ও ঔজ্জ্বল্য বাড়াতে রোজ গোসলের পর এবং রাতে ঘুমানোর আগে অলিভ অয়েল অথবা লিকুইড প্যারাফিন মাখতে পারেন।l

 

 

চর্ম ও যৌন বিভাগ,

 শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতাল

 

 

You are here: Home Health Tips Skin and Beauty